রোনালদোহীন ক্লাসিকোতে বার্সার জয়

Share Now

স্পেনের বাইরে সর্বশেষ ১৯৮২ সালে ভেনেজুয়েলায় মুখোমুখি হয়েছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সেলোনা। সেই ম্যাচে অবশ্য জয় পেয়েছিল বার্সেলোনা। তাই এই ম্যাচটার গুরুত্ব অনেক। কারণ স্পেনের বাইরে ৩৪ বছর পর প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে এল ক্লাসিকো।

৩৪ বছরের সেই ম্যাচের পুনরাবৃত্তি ঘটালো বার্সা। যুক্তরাষ্ট্রে ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে ভরপুর ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের ৩-২ গোলে হারিয়েছে মেসি-নেইমাররা। অবশ্য এই ম্যাচে খেলা হয়নি রিয়াদ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর।

ম্যাচের ৩ মিনিটের মাথায় রিয়ালের গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে বোকা বানিয়ে মেসির শট রাফায়েল ভারানের গায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে জড়ায়। ৪ মিনিট পরই ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় বার্সেলোনা। বাঁ দিক থেকে নেইমারের নিচু ক্রস সুয়ারেস ছেড়ে দিলে জোরালো শটে বল জালে পাঠান ইভান রাকিতিচ।

১৬তম মিনিটে ২-১ গোলের ব্যবধান করেন রিয়ালের করোশিয়ান মাতেও কোভাসিচ। ডি-বক্সের প্রান্ত থেকে ইয়েসপার সিলেসেনকে ফাঁকি দেন কোভাসিচ। বিরতি যাওয়ার আগে ম্যাচের সমতায় ফেরেন করিম বেনজেমা ও গ্যারেথ বেলরা। রোনালদোর জায়গায় সুযোগ পেয়ে ৩৬তম মিনিটে জিনেদিন জিদানের ভরসার প্রতিদান দেন আসেনসিও। পাল্টা আক্রমণে মাঝ মাঠ থেকে বল নিয়ে এগিয়ে পাস দিয়েছিলেন কোভাসিচকে। ডি-বক্সে বল ফেরত পেয়ে কাছের পোস্ট দিয়ে নিচু শটে সহজেই সিলেসেনকে পরাস্ত করেন স্পেনের এই খেলোয়াড়।

বিরতির পাঁচ মিনিটের মধ্যে আবারও ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় আরনেস্তো ভালভারদের শীর্ষরা। বাঁ দিক থেকে নেইমারের মাপা ফ্রি-কিকে পা বাড়িয়ে বল জালে পাঠিয়ে দেন জেরার্দ পিকে। এরপর চেষ্টা করেও পরাজয় ঠেকাতে পারেনি রোনালদোহীন জিদানের শীর্ষরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *