ত্রিদেশীয় সিরিজে কে ফেভারিট?

Share Now

এক সময় বাংলাদেশের প্রায় নিয়মিত প্রতিপক্ষ ছিল জিম্বাবুয়ে। ওদের প্রধান কোচ হিথ স্ট্রিক ছিলেন বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ। বাংলাদেশের সদ্য সাবেক হওয়া ওস্তাদ চণ্ডিকা হাথুরুসিংহে লঙ্কানদের প্রধান কোচ। সবাই সবাইকে চেনে। পার্থক্য আসলে হচ্ছে কিসে? ম্যাথুসের মতে ব্যাটসম্যানদের হাতেই থাকছে চাবিকাঠি, ‘নির্দিষ্ট দিনে ভালো পারফর্ম করতে হবে। যে দল বেশি রান করবে, তারাই জিতবে। প্রতিটি দলই লড়াই করবে।’

শ্রীলঙ্কার মাঠে গিয়ে সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজ ড্র করেছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়েতে লঙ্কায় গিয়ে ম্যাথুসদের হারিয়েই এসেছে। সবটা আমলে নিয়েই লঙ্কান অধিনায়ক মনে করছেন লড়াই হবে কঠিন, ‘বাংলাদেশ গত আড়াই বছরে দারুণ ক্রিকেট খেলছে। জিম্বাবুয়েও কয়েক বছর আগের তুলনায় ভালো খেলছে। বেশ কয়েকজন ভালো ক্রিকেটার ওদের ফিরে এসেছে। এটি তাই জম্পেশ টুর্নামেন্ট হবে।’

ম্যাথুস আগেও অধিনায়ক হয়েছিলেন। কিন্তু চোটজর্জর হয়ে টানতে না পেরে ছেড়ে দিয়েছিলেন দায়িত্ব। হাথুরুসিংহে কোচ হয়ে ফের ম্যাথুসকে ওয়ানডে দলের অধিনায়কত্বে ফিরিয়ে এনেছেন। ম্যাথুসও স্বীকার করলেন কোচ আর বোর্ড প্রেসিডেন্টের কথায় ফিরেছেন তিনি, ‘দুটি মিলিয়েই আসলে। কোচ আমার সঙ্গে কথা বলেছেন। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের প্রেসিডেন্ট ও নির্বাচকেরাও বলেছেন। আমরা সবাই মিলেই সম্মিলিত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। নেতৃত্বে ফিরে আমি খুশি। অবশ্যই প্রত্যাশা করিনি। কিন্তু ফিরে ও চ্যালেঞ্জ নিতে পেরে আমি খুশি। তাকিয়ে আছি সামনে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *